দৈনিক মতামত

প্রতিভা বিকাশের অন্যতম মাধ্যম

তথ্য

ভারতের সামরিক শক্তি বৃদ্ধির অবিরাম যাত্রা চলছেই

ভারতের সামরিক শক্তি বৃদ্ধির অবিরাম যাত্রা চলছেই ….
.
.
Enemy at the gate অনেকদিন আগে মুভিটা দেখেছিলাম কিন্তু ভাবেনি তা সত্যিকার অর্থে রূপ নিবে ।
.
আজ বাংলাদেশ কিছু লোকের রটিয়ে দেয়া মিথ্যা উপর দাড়িয়ে আছে ।
বলা হয় একটি দেশের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্ব রক্ষা করতে গেলে থাকা চাই শক্তিশালী সামরিক বাহিনী । আমাদের দেশের সামরিক বাহিনী যেই দুর্বল সেই দুর্বলেই রয়ে গেছে ।


.
.
আজ বাংলাদেশের সেনাবাহিনী কে ভিন্নভাবে ব্যবহার করে বোঝানো হচ্ছে সেনাবাহিনী ঠিক পথে রয়েছে ।
আজ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কে জাতিসংঘের মুখাপেক্ষী করে রাখা হয়েছে ।
শুধু তাই না জাতিসংঘে যাওয়াটা কে তারা দেশপ্রেম হিসেবে দেখে থাকে । ইংরেজি তে একে বলে I Wash । মানে প্রপাগান্ডা তে জনগন কে বোঝানো ।
.
সেনাবাহিনী কে ঢাকার মশা মারতে নামানো হচ্ছে , নামানো হচ্ছে ময়লা আর্বজনা পরিষ্কার করতে ।

এই যখন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর অবস্থা তখন বাংলাদেশের সবথেকে বড় শত্রুরাষ্ট্র ভারত তথা রেন্ডিয়া ঠিকেই যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে ।
তারা প্রতিনিয়ত তাদের সামরিক শক্তি বৃদ্ধি করছে অত্যাধুনিক অস্ত্রশস্ত্রে ।
.
কথা না বাড়িয়ে একনজরে দেখা যাক ভারত যে সকল সমরাস্ত্র তাদের বহরে যোগ করছে :-
.
ফ্রান্স থেকে অর্ডার করা ৩৬টি রাফাল মাল্টিরোল যুদ্ধবিমানের মধ্যে প্রথম ইউনিট আগামী সেপ্টেম্বরেই হাতে পাচ্ছে ।

ছবিতে রাফাল যুদ্ধবিমান

৭২৬০০টি SIG-716 অ্যাসল্ট রাইফেল এই বছরেই ডেলিভারি পাবে আমেরিকার কাছ থেকে।
.
প্রায় ১ লাখ AK-103 বা AK-203 অ্যাসল্ট রাইফেল কেনার চুক্তি করবে রাশিয়ার সাথে ।
.
২৪টি অ্যাপাচি অ্যাটাক হেলিকপ্টার অর্ডার করেছে আমেরিকার কাছে যার কয়েকটা ডেলিভারি পেয়েছে ।
.
৪৫টি Harpy আত্মঘাতী ড্রোন ইসরাইলের কাছে থেকে কিনেছে এবং ইসরাইলের কাছ থেকে আরো ১০০টি কোটি ডলার সমরাস্ত্র ক্রয়ের ঘোষনা দিয়েছে।
.
আমেরিকার কাছ থেকে ২৪টি SH-60 Seahawk অ্যান্টি সাবমেরিন হেলিকপ্টার ডেলিভারি পেয়েছে ।

ছবিতে:-SH-60 অ্যান্টি সাবমেরিন হেলিকপ্টার

আমেরিকার কাছ থেকে ২২টি আধুনিক MQ-9 অ্যাটাক ড্রোন কিনেছে ।

ছবিতে-MQ-9 অ্যাটাক ড্রোন ।


.
নতুন করে ৫০বা ৬০ হাজার পিস গ্রেনেড কিনবে তারা ।
.
৪৪২০০টি লাইট মেশিনগান কিনবে ।
.
.
উপরোক্ত সমরাস্ত্রগুলো তারা মাত্র ২ বছরে পরিকল্পনা করে কিনেছে ।
এখন অনেকেই প্রশ্ন করবেন রেন্ডিয়া অনেক বড় দেশ তারা এতগুলো অস্ত্র অর্ডার দিতেই পারে অথবা তাদের খবর জেনে কি লাভ ?
.
আসলে আমিও কথাগুলো বলতাম না । বলেছি ২টা কারনে :-
১ নাম্বার কারন ভারত এত এত বিপুল পরিমানে সমরাস্ত্র কেনার মাধ্যমে আঞ্চলিকভাবে ও বাংলাদেশের জন্য এক বিরাট হুমকির সৃষ্টি করছে ।
.
২ নাম্বার কারন একবার ভাল করে দেখুন ভারত গত ২ বছরে যে সকল সমরাস্ত্র কিনেছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী তার ৪ ভাগের ১ ভাগ কিনেছে কিনা । তাদের কাজ হয়ে গেছে এখন ক্যান্টরমেন্ট বসে খাওয়া আর জাতিসংঘে গিয়ে দেশপ্রেম দেখানো ।
.
.
আমি বলছি না যে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কে বিপুল পরিমানে সমরাস্ত্র কিনতে হবে । একটা নির্দিষ্ট পরিমানে বাজেটের সাথে মিল রেখে এবং অন্যান্য খাতে যাতে বাজেট ঘাটতির সৃষ্টি না হয় সেভাবে তারা সমরাস্ত্র কিনতে পারে ।
.
লক্ষ্য করে দেখুন গত ২ বছরে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী উল্লেখযোগ্য কোন সমরাস্ত্র কিনেছে কিনা ?
তারা এবং সরকার বাংলাদেশ কে চরম ঝুকির মধ্যে ফেলেছে । আর এক শ্রেনীর জুতা চাটা লোক ও ফেসবুক প্রতিবন্ধীরা বলে বেড়াচ্ছে মিয়ানমারের সমরাস্ত্র ভাঙ্গারি , ভারত কখনো যুদ্ধ করতে আসবে না ।
.
আচ্ছা সত্যিকারের যুদ্ধ যদি বেধেই যায় তখনকার পরিস্থিতি কি হবে তা কি সেনাবাহিনী একবারো ভেবে দেখেছে ??
.
ভারত তো ইতিমধ্যে তাদের RAW ও ইসকন দ্বারা বাংলাদেশ কে গ্রাস করে ফেলেছে ।
আজ পর্যন্ত তো দেখলাম না সেনাবাহিনী কে RAW এবং ইসকনের বিরুদ্ধে কথা বলতে !!

আজ বাংলাদেশের অবস্থা হয়েছে ঠিক ওই Enemy at the gate এর মতো । শত্রুরা খুব কাছেই চলে এসেছে । আর একদিন এটা এইদেশের সবাই কে ভুগিয়ে ছাড়বে যদি এদের দমন না করা যায় ।

লেখেছেন@ফারহান জোবান(গবেষক ও ইতিহাসবিদ)

5 COMMENTS

LEAVE A RESPONSE

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।